krishna

গ্রেটার ওয়াশিংটন হিন্দু সোসাইটি”র সরস্বতী পূজার আয়োজন

লোটাস ৱায়, আলেকজান্দ্রিয়া, ভার্জিনিয়া: মাঘ মাসের শুক্লাপঞ্চমীতে গ্রেটার ওয়াশিংটনে বসবাসরত সনাতন ধর্মাবলম্বীরা শীতের হাওয়ায় দোলা লাগানো রঙ্গিন প্রকৃতিতে বিদ্যার দেবী সরস্বতীকে বরন করেছে। ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য্য এবং ব্যাপক আনন্দ আয়োজনের মধ্য দিয়ে পঞ্চমবারের মত এই এলাকার অন্যতম স্বনামধন্য সংগঠন, গ্রেটার ওয়াশিংটন হিন্দু সোসাইটি (GWHS) জ্ঞানদাত্রী ও বাকদেবী মা সরস্বতীর পূজার আয়োজন করেছিল। ৪ঠা ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ তে ভার্জিনিয়ার আলেকজান্দ্রিয়ায় অবস্থিত মার্ক টোয়েন মিডল স্কুলের মিলনায়তনে এই বিশেষ দিনটি বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার সাথে পালন করা হয়।  

শুভ্রবরনা দেবীর পূজা অর্চনা, পুষ্পাঞ্জলী প্রদান, হাতেখড়ি, প্রসাদ বিতরন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা দিয়ে সাজানো হয়েছিল সারাদিনব্যাপী এই পূজার অনুষ্ঠান। এই পূজার পৌরহিত্য করেন মহাদেব ঘটক।

 

 

 

 

দেবীর অনন্তরূপ, চেতনার অনন্তরূপেরই আধার। এই আরাধনায় সিদ্ধ হয় মানুষের পার্থিব জীবনের সমগ্র জ্ঞান আহরনের প্রচেষ্টা। তার আশীর্বাদে মানব লাভ করে আত্মজ্ঞান। মায়ের কৃপার্থী ভক্তবৃন্দ সকাল থেকেই পূজার ডালি নিয়ে পূজার মন্ডপে পৌঁছানো শুরু করে। ধূপ ধুনোর মনভরানো সুগন্ধ আর শঙ্খ, ঢোল আর কাশির বাড়িতে পূজামন্ডপের চারিদিক মুখরিত হয়ে ওঠে। পঞ্চ প্রদীপের প্রজ্জলিত শুভ্র শিখার সাথে ভক্তবৃন্দ স্তুতি পাঠ করে, “জয় জয় দেবী, চরাচর সারে, কুচ যুগ শোভিত মুক্তাহারে” । পুরো পূজামন্ডপটি জুড়ে চলে সরস্বতী দেবীর আরাধনা।

পূজা অর্চনার সমাপ্তি হলে অঞ্জলি প্রদান, হাতেখড়ি এবং প্রসাদ বিতরন সহ মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করা হয়।

ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বাঙ্গালির কৃষ্টি ও সংস্কৃতি সম্পর্কে অবগত ও সম্পৃক্ত করার মূল লক্ষ্য নিয়ে দুপুর তিনটায় মনোহর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শুরু হয়। অনুষ্ঠানটি শুরু করা হয় ক্ষুদ্র শিল্পীদের গনেশ বন্দনার মধ্য দিয়ে। এ পর্বে ক্ষুদে শিল্পীরা দলীয় সঙ্গীত, ছড়া, নৃত্য সহ সরস্বতী বন্দনার উপস্থাপন করে। এর পরেই তরুন, তরুনী এবং বড়দের উপস্থাপনায় দলীয় সঙ্গীত, একক সংগীত, একক ও দলীয় নৃত্য, ভক্তিগীতি, রবীন্দ্রসঙ্গীত, নজরুলগীতি , আধুনিক গান পরিবেশন করে। সংগঠনের শিল্পীবৃন্দের সঙ্গীতের সুর লহরীর সাথে নৃত্যের ঝংকারে মেতে উঠে মঞ্চের আঙ্গিনা। এছাড়া এছাড়া আবহমান বাংলার ঋতুবৈচিত্রের সাথে আসা পার্বন গুলোকে নৃত্যনাট্যের মধ্য দিয়ে ফুটিয়ে তোলে সংগঠনের ভবিষ্যত প্রজন্মরা। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের তৃতীয় পর্বে এই এলাকার স্বনামধন্য শিল্পী রুমা ভৌমিক, উৎপল বড়ুয়া ও নাসের চৌধুরী তাদের অসাধারন গায়কীতে শ্রোতাদের মুগ্ধ করেন।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষন ছিল ব্যান্ড শো এর উপস্থাপনায় রবীন্দ্রসঙ্গীত, লোকগীতি, হিন্দী ও আধুনিক গানের অপূর্ব মিশ্রন।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পুরো সময় জুড়ে অসাধারন যন্ত্রসঙ্গীত বাজিয়েছেনঃ তবলায়- আশীষ বড়ুয়া, হারমোনিয়ামে- সীমা দাস ও মৌসুমী মিত্র শম্পা, কী বোর্ডে- সামি, গিটারে- শুভ্র, বাঁশিতে- মজিদ, মন্দিরাতে- সরোজ বড়ুয়া।

সাবলীল উপস্থাপনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন লোটাস রায়, সরোজ শর্মা ও শুভ্রা দাস।

 

 

 

 

 

 

সন্ধ্যা আরতীর মাংগলিক ছোঁয়ায়, মানব জাতিকে অজ্ঞানতার অন্ধকার থেকে জ্ঞানের আলোকে চেতনায় উদ্ভুদ্ধ করার লক্ষ্যে গ্রেটার ওয়াশিংটন হিন্দু সোসাইটির এই সরস্বতী পূজায় গ্রেটার ওয়াশিংটন এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীসহ বিভিন্ন ধর্ম, বর্ণ,সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সুশীল সমাজের ব্যাক্তিবর্গের বিপুল সংখ্যক উপস্থিতি পূজা অনুষ্ঠানটিকে যেন আরো মাধুর্য্যমন্ডিত করে তোলে।

ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধের বিকাশ, বিশেষ করে তরুন প্রজন্মকে ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক চর্চার সাথে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে গ্রেটার ওয়াশিংটনের সকল সনাতন ধর্মাবলম্বীদের নিয়ে গ্রেটার ওয়াশিংটন হিন্দু সোসাইটি গুটি গুটি পায়ে যে পথচলা শুরু করেছে, তার কিছুটা সফলতার ছোঁয়া রয়েছে সারাদিনব্যাপী আনন্দঘন অনুষ্ঠানের আয়োজনে। সার্থকতা পেয়েছে সরস্বতী পূজা অর্চনা।